1. info@bdchannel4.com : BD Channel 4 :
বৃহস্পতিবার, ৩০ নভেম্বর ২০২৩, ১১:০৯ অপরাহ্ন

ভৈরব ট্রাজেডি, যারা মারা গেলেন

নিউজ ডেস্ক।।
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২৩
  • ৪৩৩ বার পড়া হয়েছে

 

কিশোরগঞ্জের ভৈরব রেলওয়ে জংসনের অদূরে সংঘটিত ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনায় সরকারীভাবে ঘোষিত মৃত ১৭ জনের মধ্যে ১৬ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। যদিও নানা সূত্রমতে নিহতের সংখ্যা আরো বেশী বলে দাবী করা হচ্ছে। বাকি একজনের পরিচয় এখনো শনাক্ত হয়নি।

নিহতদের মধ্যে কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার বোয়ালিয়া গ্রামের কাসেম মিয়ার ছেলে গোলাপ মিয়া, মিঠামইন উপজেলার হাবিবুর রহমানের ছেলে রাসেল মিয়া, ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইল উপজেলার গাঙ্গালপাড়া এলাকার রইস উদ্দিনের ছেলে সুজন মিয়া, তার স্ত্রী ফাতেমা বেগম, ছেলে সজিব মিয়া ও ইসমাইল মিয়া, একই উপজেলার মেরেঙ্গা গ্রামের জোনায়েদের স্ত্রী হোসনা আক্তার, ঢাকার দক্ষিণখান এলাকার আবদুর রহমানের ছেলে এ কে এম জালাল উদ্দিন আহমেদ, ভৈরব উপজেলার রাধানগর গ্রামের আবদুল মান্নানের ছেলে আফজাল হোসেন, একই উপজেলার রানীবাজার এলাকার প্রবোধ শীলের ছেলে সবুজ চন্দ্র শীল, শ্রীনগর এলাকার মানিক মিয়ার ছেলে রাব্বি মিয়া, কুলিয়ারচর উপজেলার লক্ষীপুর এলাকার জিল্লুর রহমানের ছেলে ইমারুল কবীর, বাজিতপুর উপজেলার পিরোজপুর ডুয়াইগাঁও এলাকার আবদুল হাইয়ের ছেলে আসির উদ্দিন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলার বরউছড়া এলাকার মৃত সুরত আলীর ছেলে নিজাম উদ্দিন সরকার ও কিশোরগঞ্জ জেলার চানপুরের গোপদীঘির চান মিয়ার ছেলে সাইমন মিয়া।

এদিকে ভৈরব উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে নিহত ১৭ জনের মধ্যে ১৬ জনের মরদেহ তাদের স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বাকি একজনের পরিচয় শনাক্ত না হওয়ায় তার মরদেহ এখনো হস্তান্তর করা যায়নি।

ভৈরবের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদেকুর রহমান সবুজ জানান, আর কোনো মরদেহ পাওয়া যায়নি। দুর্ঘটনায় ১৭ জনই মারা গেছেন। তবে আহতের সংখ্যা অনেকে। শতাধিক হতে পারে সেই সংখ্যা। তারা বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: বাংলাদেশ হোস্টিং